মাইক্রোওয়ার্ক সাইটের যে টাস্কগুলো কখনোই করা উচিৎ নয়


এটি একটি বিজ্ঞাপন

মূল ব্লগ নিচে

মাইক্রোওয়ার্ক সাইটের যে টাস্কগুলো কখনোই করা উচিৎ নয় | টেকনিসিয়াম


মাইক্রোওয়ার্ক সাইট কি?


মাইক্রোওয়ার্ক হল এমন কিছু ওয়েবসাইট যেখানে তুমি অনলাইনে অর্থ উপার্জন করতে পারবে। আর মাইক্রোওয়ার্ক কাজ করা বেশ সহজ। এটির নাম যেমন তেমনি এই সকল সাইটে ছোট ছোট কাজ করেই টাকা পাওয়া যায়। অল্প সময়ের মধ্যে, তুমি কিছু অর্থ উপার্জন করতে পারেন। এই সাইটগুলোতে যেকেউ কাজ করতে পারে ও মজার বিষয় হলো অল্প টাকা খরচে যে কেউ এই সাইটগুলোতে কাজ জমা দিতেও পারে। আর এটিই এই ওয়েবসাইটগুলোর একটি দুর্বলতা বা সমস্যা। যেকেউ কাজ করিয়ে নিতে পারে বলে, যেকেউ খারাপ কাজও করিয়ে নিতে পারে। তাই, মাইক্রোওয়ার্ক সাইটে কাজ করার সময় তোমার কিছু তথ্য মনে রাখতে হবে। যেটি নিয়েই এই ব্লগে লিখছি।

কী মনে রাখবো?


মাইক্রোওয়ার্কার্সে নানা রকমের কাজ রয়েছে। তবে উদাহরণ হিসেবে যদি একটি কাজের কথা উল্লেখ করি তাহলে সেটা হলো মোবাইল ভেরিফিকেশনের মাধ্যমে জিমেইল খোলা। তুমি কি ভেবেছো তারা এতো জিমেইল দিয়ে কি করবে? না ভাবলে আমি বলছি-
এসকল জিমেইল দ্বারা স্প্যামিং ও স্ক্যামিং করা হয়। স্প্যামিং ও স্ক্যামিং কি তা হয়তো তোমাদেরকে বলে দিতে হবে না। কোন লোক যদি তোমার তৈরি এই জিমেইল থেকে অবৈধ কাজ করে তাহলে সেই লোক ফাঁসবেনা, ফাঁসবে তুমি।

আমি কেন ফাঁসবো?


নিজের লাইসেন্সযুক্ত বন্দুক অন্যকে দিয়ে দিলে কী ঝুঁকি হবে?
স্পষ্টতই, তুমি যাকে বন্দুক দিবে সে যদি কোনও অপরাধ করে তবে তুমিও আইনের চোখে অপরাধী হবে। একইভাবে, তুমি যখন কোনও ইমেল আইডি তৈরি করো, তখন তোমাকে নিজের মোবাইল নাম্বার দিয়ে রেজিষ্ট্রেশন করতে হয়। আচ্ছা, তুমি যদি কোন রকমে ফোন নাম্বার ব্যবহার না করেই এই একাউন্টগুলো করতেও পারো তারপরও হয়তো এই সকল ওয়েবসাইট তোমার আইপি সংরক্ষণ করছে, তাছাড়া তুমি যাদেরকে ইমেইলগুলো পাঠাচ্ছো তাদের কাছেতো তোমার পরিচয় একদম নিশ্চিত। সুতরাং, তুমি যদি মাইক্রোওয়ার্ক সাইটগুলোতে সেই কাজগুলি করো যেখানে ইমেল আইডি এবং পাসওয়ার্ড জিজ্ঞাসা করা হয় তবে মনে রাখবে যারা ইমেল আইডি এবং পাসওয়ার্ড পেয়েছে তারা এটির অপব্যবহার করতে পারে ও কোনও অপরাধও করতে পারে, যেটি অবশেষে তোমাকে ভুগতে হতে পারে। এটি কিন্তু শুধুমাত্র ইমেইলের ক্ষেত্রেই সীমাবদ্ধ নয়, বরং বিভিন্ন ওয়েবসাইটে একাউন্ট খোলার মতো কাজেও হতে পারে।     

তাহলে কি মাইক্রোওয়ার্ক সাইটে কাজ করবো না?


কেন করবে না? অবশ্যই করবে। এই সাইটে অনেক ভালো কাজ রয়েছে। আর, তুমি যদি ফোন ভেরিফাই করেই এসকল কাজ করতে চাও তাহলে আরেকবার ভাবো - 
২০ সেন্ট নিবে, নাকি ২০দিনের জেল খাঁটবে?
যাহোক, ইন্টারনেটে সতর্ক থাকো, নিরাপদ থাকো।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্য